বিপিএল ২০২২ : তামিম, রিয়াদের ঢাকার কাছে হারলো সাকিবের বরিশাল ; খুলনাকে হারিয়ে চট্টগ্রামের টানা ২ ম্যাচ জয়

বিপিএল ২০২২ : তামিম, রিয়াদের ঢাকার কাছে হারলো সাকিবের বরিশাল ; খুলনাকে হারিয়ে চট্টগ্রামের টানা ২ ম্যাচ জয় ! বঙ্গবন্ধু বিপিএল ২০২২ এ দিনের প্রথম ম্যাচে ফরচুন বরিশালকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে ঢাকা।টস জিতে  বরিশালকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় ঢাকা। শুরু থেকেই উইকেট ধরে রাখাত চেষ্টায় ধীর গতিতে ব্যাট করতে থাকে বরিশাল। দলীয় ২১ রানে প্রথম উইকেট হারায় বরিশাল। শুভগত হোমের বলে লং অফে ক্যাচ  দিয়ে ব্যাক্তিগত ৫ রানে সাজঘররে ফেরেন বরিশালের ব্যাটার নাজমুল হাসান শান্ত।

বিপিএল ২০২২ : তামিম, রিয়াদের ঢাকার কাছে হারলো সাকিবের বরিশাল ; খুলনাকে হারিয়ে চট্টগ্রামের টানা ২ ম্যাচ জয় - বোলিংয়ে ইসুরু উদানা; নন স্ট্রাইক প্রান্তে ক্রিস গেইল
বোলিংয়ে ইসুরু উদানা; নন স্ট্রাইক প্রান্তে ক্রিস গেইল

পরের ওভারেই হাসান মুরাদের বলে বড় শট খেলতে  গিয়ে মিড অফে ক্যাচ দিয়ে ব্যাক্তিগত ১৫ রানে আউট  হন বরিশাল ওপেনার সৈকত আলী। পঞ্চম ওভারের দ্বিতীয় বলে অ্যান্ডরি রাসেলের বলে লেগ বিফোর উইকেটের ফাঁদে পড়ে  প্যাভিলিয়নে ফিরে যান বরিশাল  ব্যাটার তৌহিদ হৃদয়। ২৩ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়া বরিশালের সাময়িক চাপ সামাল দেন সাকিব আল হাসান এবং ক্রিস গেইল। তবে দলীয় ৬০ এবং ৬১  রানে সাকিব ও নুরুল হাসান সোহান আউট হলে পুনরায় ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে ফরচুন বরিশাল।

বরিশাল অধিনায়ক সাকিব ১৯ বলে ২৩ রান করেন এবং সোহান আউট হন মাত্র ১ রান করে। ব্যাটারদের আশা যাওয়ার মিছিলে শেষের দিকে ডোওয়েরন ব্রাভোর ২৬ বলে অপরাজিত ৩৩ রানের সুবাদে ১২৯ রানের লড়াকু পুঁজি পায় ফরচুন বরিশাল। বরিশালের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৬ রান করেন ক্রিস গেইল, ঢাকার পক্ষে রাসেল এবং উদানা উভয়েই নেন ২ টি করে উইকেট।

 

বিপিএল ২০২২ : তামিম, রিয়াদের ঢাকার কাছে হারলো সাকিবের বরিশাল ; খুলনাকে হারিয়ে চট্টগ্রামের টানা ২ ম্যাচ জয় - বোলিংয়ে ইসুরু উদানা; নন স্ট্রাইক প্রান্তে ক্রিস গেইল

 

[ বিপিএল ২০২২ : তামিম, রিয়াদের ঢাকার কাছে হারলো সাকিবের বরিশাল ; খুলনাকে হারিয়ে চট্টগ্রামের টানা ২ ম্যাচ জয় ]

১৩০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই হোচট খায় মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকা। রানের খাতা খোলার আগেই আউট হন, আগের ২ ম্যাচের হাফ সেঞ্চুরিয়ান তামিম ইকবাল। দলীয় ১০ রানেই ৪ উইকেট হারিয়ে চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে তারা। তবে এরপর ঢাকার হাল ধরেন দুই অভিজ্ঞ ব্যাটার মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ এবং শুভাগত হোম। ৬৯ রানের একটি ম্যাচ বাচানো পার্টনারশিপ করেন তারা।

ইনিংসের  ১৩ ওভারের প্রথম বলে ডিজে ব্রাভোর বলে শুভাগত হোম ব্যক্তিগত ২৯ রান করে প্যাভিলিয়নে ফিরে গেলেও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের দায়িত্বশীল ব্যাটিং এবং অ্যান্ড্রি রাসেলের আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে ৪ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকা। মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ৪৭ বলে ৪৭ রান করেন এবং অ্যান্ড্রি রাসেল অপরাজিত থাকেন ১৫ বলে ৩১ রানে। নিজের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ের কারণে ম্য্যাচ সেরা নির্বাচিত হন ঢাকা অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ।

ব্যাটিংয়ে রাসেল
ব্যাটিংয়ে রাসেল

দিনের আরেক ম্যাচে খুলনা টাইগার্সকে ২৫ রানে হারিয়ে বিপিএল ২০২২ এ টানা দ্বিতীয়  জয় তুলে নিল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স । মিরপুরে টস হেরে ব্যাট করতে নামে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। শুরু থেকেই আগ্রাসী ভঙ্গিতে ব্যাটিং করতে থাকে চট্টগ্রামের ব্যাটররা। ৭ বলে ১৭ রান করে দলীয় ২৯ রানে আউট হন উইল জ্যাকস। এরপর দলীয় ৫২ রানে নিজের উইকেট হারান  আরেক ভয়ঙ্কর ব্যাটার কেনার লুইস। ১৪ বলে ২৫ রান করেন লুইস। দলীয় ৬৯ রানে ৩ উইকেট হারানোর পর।

দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে একটি বড় স্কোরের ভীত গড়ে দেন চট্টগ্রাম ব্যাটার সাব্বির রহমান এবং অধিনায়ক মেহেদি হাসান মিরাজ।দলীয় ১১৭ রানে ব্যাক্তিগত ২৩ রান করে নাভিন উল হকের বলে আউট হন মিরাজ। ্দলীয় ১৩১ রানে ব্যাক্তিগত ৩২ রান করে আউট হন ব্যাটার সাব্বির রহমান।  ইনিংসের শেষের দিকে  অলরাউন্ডার বেনি হাওয়েলের রুদ্ররুপী ২০ বলে ৩৪ রানের ইনিংসে ১৯০ রানের বিশাল পুঁজি পায় চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। চট্টগ্রামের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩২ রান করেন ব্যাটার সাব্বির রহমান, ঢাকার পক্ষে সর্বোচ্চ ২ উইকেট নিয়েছেন পেসার কামরুল ইসলাম।

ম্যাচ জেতার পর চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স দল
ম্যাচ জেতার পর চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স দল

১৯১ রানের বিশাল লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ২৭ রানে ২ উইকেট হারায় খুলনা। এরপর অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান এবং খুলনা অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম বেশ কিছুক্ষণ উইকেটে থেকে দলকে এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করলেও দলীয় ৭২  এবং ৭৬ রানে দুই সেট ব্যাটার মাহেদী হাসান এবং মুশফিকুর  রহীমের উইকেট হারায়  তারা। ২৪ বলে ৩০  রান করেন মাহেদী হাসান এবং ১৫ বলে ১১ রান করেন মুশফিকুর রহীম।

এরপর, ইয়াসির আলী রাব্বী এবং সিকান্দার রাজা দুই জনেই আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ের মাধ্যমে দলকে টেনে ধরার চেষ্টা করেন। ম্যাচের পঞ্চদশ ওভারের তৃতীয় বলে  ব্যাক্তিগত ২২ রানে সিকান্দার রাজা আউট হলে ম্যাচ থেকে ছিটকে যেতে থাকে খুলনা টাইগার্স। একই ওভারের পঞ্চম বলে থিসারা পেরেরা আউট হলে ম্যাচ থেকে পুরোপুরি ছিটকে যায় খুলনা। শেষের দিকে ইয়াসীর আলি রাব্বীর  ২৬ বলে ৪০ রানের ইনিংসটি শুধু কমিয়েছে হারের ব্যবধান। ম্যাচে নিজের অলরাউন্ড নৈপুণ্যের কারণে ম্যাচ সেরা হয়েছেন চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স অলরাউন্ডার বেনি হাওয়েল।

আরও পড়ুন:

মন্তব্য করুন