তিন ফরম্যাটে ৫ উইকেট শিকারি বোলার [ 5 wicket hunter bowler in three formats ] !!!

তিন ফরম্যাটে ৫ উইকেট শিকারি বোলার [ 5 wicket hunter bowler in three formats ] !!!

টেস্ট ক্রিকেটের পথ চলা ১৮৭৭ থেকে অর্থাৎ প্রায় দেড়শো বছর আগে। ওয়ানডে ক্রিকেটের জন্ম ১৯৭১ সাল থেকে। বছরের হিসেবে অর্ধশতক পূর্ণ করলো ওয়ানডে ক্রিকেট৷ ২০০৫ সালে যাত্রা শুরু হয় টি টোয়েন্টি ক্রিকেটের। দেখতে দেখতে ১৬ বছর পার হয়ে গেলো। দেড় যুগ বললেও মন্দ হবেনা। ক্রিকেটে একটি ইনিংসে ব্যাটসম্যানদের জন্য সেঞ্চুরি করা যেমন সম্মানজনক অর্জন তেমনি বোলারদের জন্য সেটা ইনিংসে ৫ উইকেট।

 

তিন ফরম্যাটে ৫ উইকেট শিকারি বোলার [ 5 wicket hunter bowler in three formats ] !!!

 

তিন ফরম্যাটে ৫ উইকেট শিকারি বোলার [ 5 wicket hunter bowler in three formats ] !!!

এই জায়গায় অজি বোলার বিলি মিডউইন্টার এর নামটা স্মরণীয় হয়ে থাকবে আজীবন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথম বোলার হিসেবে ইনিংসে ৫ উইকেট পাওয়া বোলার যে তিনি। ১৮৭৭ সালের মার্চে ইতিহাসের প্রথম টেস্টে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে এই কীর্তি গড়েন তিনি৷ সেই থেকে শুরু৷ প্রায় প্রতি ম্যাচেই দুই একজন বোলার এমন কীর্তি গড়ে থাকেন। তবে টেস্ট ক্রিকেটে মাঝেমাঝে সংখ্যাটা এর বেশীও হয়। আবার টি টোয়েন্টি ক্রিকেটে ইনিংসে ৫ উইকেট অহরহ ঘটে না।

তিন ফরম্যাটে ৫ উইকেট শিকারি বোলার [ 5 wicket hunter bowler in three formats ] !!!

 

খুব বেশী ক্রিকেটার টি টোয়েন্টি তে এই কীর্তি গড়তে পারেননি। আবার কয়েকজন ক্রিকেটার আছেন একই সাথে ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটের সব গুলোতেই আছেন ইনিংসে ৫ উইকেট নেওয়ার কীর্তি। ওমর গুল থেকে রাশিদ খাঁন, এখন পর্যন্ত এমন রেকর্ডে নাম লেখতে পেরেছেন মাত্র ৯ জন ক্রিকেটার।

ওমর গুল:

তালিকার প্রথম নামটা এই পাকিস্তানি বোলারের। ২০০৩ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে তে ১৭ রানে ৫ উইকেট, ২০০৪ সালের ভারতের বিপক্ষে ৩১ রানে ৫ উইকেট, এরপর ২০০৯ সালে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত আইসিসি টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে কিউইদের বিপক্ষে ৬ রানে ৫ উইকেট এবং তাতেই গড়েন বিরল এক রেকর্ড। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ইতিহাসের প্রথম বোলার হিসেবে ৩ ফরম্যাটেই ৫ উইকেট শিকারী বনে যান তিনি। ওয়ানডেতে দুই বার, টেস্টে ৪ বার আর টি টোয়েন্টি তে ২ বার ইনিংসে ৫ উইকেট শিকার করেন এই বোলার।

টিম সাউথি:

দ্বিতীয় বোলার হিসেবে এই কীর্তি গড়েন কিউই এই পেসার। টেস্ট ক্রিকেটে তার ৫ উইকেট আছে ১২ বার, ওয়ানডে তে ৩ বার আর টি টোয়েন্টি ক্রিকেটে ১ বার। টেস্টে প্রথম ৫ উইকেট

শিকার করেন ২০০৮ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে। ২০১০ সালে প্রথম বার টি টোয়েন্টি তে ইনিংসে ৫ উইকেট শিকার করেন, প্রতিপক্ষ পাকিস্তান। একই প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে ওয়ানডেতে প্রথমবার ৫ উইকেটের দেখা পান ২০১১ সালে।

লাসিথ মালিঙ্গা:

ঝাকড়া চুল, অপ্রচলিত এবং একেবারেই ভিন্ন এক অ্যাশকনে বোলিং, ইয়র্কার এবং হ্যাট্রিক। তাকে পরিচয় করিয়ে দিতে এই সবর্নাম গুলোই যথেষ্ট। অনেক রেকর্ডই করেছেন ১৬ বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে। অংশীদার হয়ে আছেন এই রেকর্ডেও। ২০০৫ সালে প্রথমবার টেস্ট ক্রিকেটে ৫ উইকেট শিকার করেন তিনি, প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড। পাকিস্তানের বিপক্ষে ৫ উইকেট শিকারের মাধ্যমে ২০১০ সালে প্রথমবার ওয়ানডে ক্রিকেটে ৫ উইকেটের স্বাদ নেন। ২০১২ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টি টোয়েন্টি ক্রিকেটে ইনিংসে ৫ উইকেট শিকার করে এই তালিকায় নাম লেখান তিনি। টেস্ট ক্রিকেটে ৫ উইকেট ৩ বার, ওয়ানডেতে ৮ বার আর টি টোয়েন্টি তে ২ বার৷

 

 উইকেট

 

অজন্তা মেন্ডিস:

‘অজন্তা মেন্ডিস’ এই নামটা বিশ্ব ক্রিকেটে অনেকটা হতাশারই। যেভাবে আগমন হয়েছিলো, সেভাবে প্রস্থানটা ঘটেনি৷ ক্রিকেটকে আরো অনেক কিছুই দিতে পারতেন এই স্পিন জিনিয়াস। এই রেকর্ডে নাম আছে এই ম্যাজিশিয়ানের৷ ২০০৮ সালে ভারতের বিপক্ষে ১৩ রানে ৬ উইকেট শিকার করে প্রথম বার ওয়ানডেতে ইনিংসে ৫ উইকেট লাভের স্বাদ নেন৷ ২০১২ তে নিজেদের দেশে টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে জিম্বাবুয়ে বিপক্ষে মাত্র ৮ রানের বিনিময়ে ৬ উইকেট শিকার করেন এই স্পিন জাদুকর। যেটি এখনো আন্তর্জাতিক টি টোয়েন্টি ক্রিকেটের সেরা বোলিং ফিগার। ২০১৪ তে বাংলাদেশের বিপক্ষে বাংলাদেশের মাটিতে শিকার করেন ৬ উইকেট। আর নাম লেখান ৩ ফরম্যাটে ৫ উইকেট শিকারীর তালিকায়। টেস্টে ৪ বার, ওয়ানডে তে ৩ বার আর টি টোয়েন্টি তে ২ বার করে ৫ উইকেট লাভ করেন তিনি।

ইমরান তাহির:

পাক- বংশোদ্ভূত দক্ষিণ আফ্রিকান এই লেগ স্পিনার এই কীর্তি গড়েন ২০১৭ তে৷ টেস্ট ক্রিকেটে প্রথম ৫ উইকেট শিকার করেন নিজ দেশ পাকিস্তানের বিপক্ষে ২০১৩ তে। বোলিং ফিগার ৫/৩২। ওয়ানডেতে প্রথম ৫ উইকেট শিকার করেন ২০১৫ তে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে, বোলিং ফিগার ৫/৪৫। টি টোয়েন্টি তে ইনিংসে ৫ উইকেট শিকার করে এই রেকর্ডে নাম লেখান ২০১৭ তে নিউজিল্যান্ডে বিপক্ষে ২৪ রানে ৫ উইকেট শিকার করে৷ এছাড়া টেস্ট ক্রিকেটে ৫ উইকেট শিকার করেছেন ২ বার, ওয়ানডেতে ৩ বার, টি টোয়েন্টি তে ২ বার।

ভুবনেশ্বর কুমার:

ভারতের ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সফল এই বোলার এই কীর্তি গড়েন ২০১৮ তে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টি টোয়েন্টি তে ইনিংসে ৫ উইকেট শিকারের মাধ্যমে৷ টেস্ট ক্রিকেটে প্রথম ৫ উইকেট শিকার করেন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২০১৪ তে৷ বোলিং ফিগার ৫/৮২। ওয়ানডেতে প্রথম ৫ উইকেট শিকার করেন ২০১৭ তে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে, বোলিং ফিগার ৫/৪২। টি টোয়েন্টি তে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ইনিংসে ৫ উইকেট শিকার করে এই রেকর্ডে নাম লেখান ২০১৮ তে।২৪ রানে শিকার করেন ৫ উইকেট। টেস্ট ক্রিকেটে ৫ উইকেট শিকার করেছেন ৪ বার, ওয়ানডেতে ৩ এবং টি টোয়েন্টি তে ১ বার৷

কুলদীপ যাদব:

ভারতীয় এই স্পিনার এই কীর্তি গড়েন ২০১৮ তে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে ইনিংসে ৫/৫৭ উইকেট শিকারের মাধ্যমে৷ এর আগে ওয়ানডেতে প্রথম ৫ উইকেট শিকার করেন ২০১৭ তে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে, বোলিং ফিগার ৬/২৫। টি টোয়েন্টি তেও একই প্রতিপক্ষের বিপক্ষে একই বছর ইনিংসে ৫ উইকেট শিকার করেন। ২৪ রানে শিকার করেন ৫ উইকেট। টেস্ট ক্রিকেটে ৫ উইকেট শিকার করেছেন ২ বার, ওয়ানডে এবং টি টোয়েন্টি তে ১ বার করে৷

সাকিব আল হাসান:

 

 উইকেট
সাকিব আল হাসান

 

বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার টেস্টে প্রথম ৫ উইকেট শিকার করেন নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ২০০৭ সালে৷ ৩৬ রানে ৭ উইকেট শিকার করেন। ওয়ানডেতে প্রথম ৫ উইকেট শিকার করেন ২০১৫ তে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে, বোলিং ফিগার ৫/৪৭। টি টোয়েন্টি তে এই কীর্তি গড়েন ২০১৮ তে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে, ২০ রান খরচায় নেন ৫ উইকেট। টেস্ট ক্রিকেটে ৫ উইকেট শিকার করেন ১৮ বার, ওয়ানডে ২ বার আর টি টোয়েন্টি তে ১ বার।

রাশিদ খাঁন:

আফগান এই লেগ স্পিনার এই কীর্তি গড়েন ২০১৯ সালে ৷ টেস্ট ক্রিকেটে ৩ বার, ওয়ানডেতে ৪ বার এবং টি টোয়েন্টি তে ২ বার তিনি ৫ উইকেট শিকার করলেন, মজার ব্যাপার হলো প্রতিটি ফরম্যাটে তার প্রথম ৫ উইকেট শিকার করা দলের নাম আয়ারল্যান্ড। ওয়ানডেতে প্রথম ৫ উইকেট শিকার করেন ২০১৭ তে, বোলিং ফিগার ৬/৪৩। টি টোয়েন্টি ক্রিকেটেও প্রথম ৫ উইকেট শিকার ২০১৭ তে, মাত্র ৩ রান খরচায় শিকার করেন ৫ উইকেট। ২০১৯ সালে ৮২ রানের বিনিময়ে টেস্ট ক্রিকেটে প্রথম ৫ উইকেট শিকার করেন।৷

লেখকঃ ইশতিয়াক শাওন

[স্পোর্টস গুরুকুল]

মন্তব্য করুন