ওয়ানডে সুপার লিগের শীর্ষে বাংলাদেশ [ One day super league ]

ওয়ানডে সুপার লিগের শীর্ষে বাংলাদেশ

আইসিসি ওয়ানডে সুপার লিগের শীর্ষে অবস্থান করছে বাংলাদেশ। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ১ ম্যাচ বাকি থাকতেই ৩ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ জয়লাভ করায় এই ওয়ানডে সুপার লিগের শীর্ষস্থান অর্জন করে তারা। এছাড়াও, এ ওয়ানডে সুপার লিগের প্রথম দল হিসেবে ১০০ পয়েন্ট স্পর্শ করলো বাংলাদেশ।

আইসিসি ওয়ানডে সুপার লিগের আওতাধীন সিরিজগুলোর মধ্যে এখন পর্যন্ত নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তাদের মাটিতে সিরিজ ছাড়া ঠিক যতগুলো সিরিজ বাংলাদেশ খেলেছে, ঠিক ততগুলো সিরিজই জিতেছে। এ সিরিজগুলোতে বাংলাদেশ দলের অধিনায়কত্ব করেছেন, তামিম ইকবাল।

ওয়ানডে সুপার লিগের শীর্ষে বাংলাদেশ

এখন পর্যন্ত, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশের সবচেয়ে পছন্দের ফরমেট হলো এই ওয়ানডে ক্রিকেট। সম্প্রতি, অন্য কোনো ক্রিকেটীয় ফরমেটে বাংলাদেশ তেমন ভালো না হলেও ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশ বরাবরই ধারাবাহিক।

উইন্ডিজঃ আইসিসি সুপার লিগের আওতাধীন , বাংলাদেশ সর্বপ্রথম সিরিজ খেলে ২০২১ সালে উইন্ডিজের বিপক্ষে।সে সিরিজ বাংলাদেশ ৩-০ তে জিতে সফরকারি উইন্ডিজ দলকে হোয়াইওয়াশ করে। সে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে উইন্ডিজকে ৬ উইকেটে হারায় বাংলাদেশ। সাকিব আল হাসানের দুর্দান্ত স্পিন বোলিংয়ে খুব অল্পতেই উইন্ডিজ দলকে গুটিয়ে ফেলে টাইগার বাহিনী।

ওয়ানডে সুপার লিগের শীর্ষে বাংলাদেশ
উইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের পর বাংলাদেশ দল

সে ম্যাচটি ছিলো দীর্ঘ ১ বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে আসা সাকিব আল হাসানের প্রথম ম্যাচ। সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে বাংলাদেশ উইন্ডিজ দলকে হারায় ৭ উইকেটে। সে ম্যাচ উইন্ডিজকে ১৪৩ রানে অলআউট করে বাংলাদেশ এবং এর পেছনে সবচেয়ে কার্যকরী ভূমিকা পালন করেন স্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ।

এ ম্যাচে মিরাজ নেন ৪টি উইকেট এবং নিয়মিত অধিনায়ক তামিম ইকবালের ফিফটি ছাড়াও ব্যাট হাতে ৪৩ রান এবং বল হাতে ২ উইকেট নিয়ে নিজের অলরাউন্ড নৈপুণ্য প্রদর্শন করেন সাকিব আল হাসান। সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে প্রথমে ব্যাট করে বাংলাদেশ এবং ২৯৭ রানের বিশাল সংগ্রহ পায় তারা। পরবর্তীতে সে ম্যাচ রান জয় লাভ করে বাংলাদেশ।

শ্রীলঙ্কাঃ ২০২১ সালে উইন্ডিজ সিরিজের পর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জয়লাভ করে বাংলাদেশ। ৩ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ ২-১ এ জিতে তামিম ইকবালের দল। সিরিজের প্রথম ম্যাচে তামিম ইকবাল এবং মুশফিকুর রহিমের হাফ সেঞ্চুরিতে ২৫৭ রানের লড়াকু পুঁজি পায় বাংলাদেশ।

ওয়ানডে সুপার লিগের শীর্ষে বাংলাদেশ
শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজ জয়ের পর বাংলাদেশ দল

এরপর, মেহেদি হাসান মিরাজ এবং মোস্তাফিজুর রহমানের চমৎকার বোলিংয়ে শ্রীলঙ্কাকে ২২৪ রানের মধ্যে অলআউট করে টিম বাংলাদেশ। সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচেও আরো চমৎকারভাবে এবং ম্যাচে এক প্রকার একক আধিপত্য বিস্তার করে জয়লাভ করে বাংলাদেশ।

সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে মুশফিকুর রহিমের সেঞ্চুরিতে ২৪৬ রানের পুঁজি পায় বাংলাদেশ। এরপর বোলিংয়ে মিরাজ, মোস্তাফিজ এবং সাকিবের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ১০৩ রানে জয়লাভ করে  বাংলাদেশ। তবে, সে সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে শ্রীলঙ্কার কাছে ৯৭ রানের বিশাল পরাজয় বরণ করে  বাংলাদেশ।

জিম্বাবুয়েঃ বরাবরের মতো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশের সবচেয়ে সহজ প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে হলেও জিম্বাবুয়ের ঘরের মাটিতে তারা যেকোনো দলকে হারানোরই সামর্থ্য রাখে। জিম্বাবুয়ের মাটিতে বাংলাদেশ সর্বশেষ সিরিজ জেতে ২০০৯ সালে। এরপর, ২০১১ এবং ২০১৩ সালে জিম্বাবুয়ের মাটিতে টানা দুটি সিরিজ হারে বাংলাদেশ। তবে, ২০২১ সালে ১২ বছর পর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জিম্বাবুয়ের মাটিতে সিরিজ জেতে বাংলাদেশ।

ওয়ানডে সুপার লিগের শীর্ষে বাংলাদেশ
জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের পর বাংলাদেশ দল

সে সিরিজটি ৩-০ ব্যবধানে জেতে বাংলাদেশ। সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে লিটন দাসের সেঞ্চুরিতে জিম্বাবুয়েকে ১৫৫ রানের বিশাল ব্যবধানে হারায় বাংলাদেশ। সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে সাকিব আল হাসানের অপরাজিত ৯৬ রানের ইনিংসের উপর ভিত্তি করে ৩ উইকেটের জয় পায় বাংলাদেশ।

সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে অধিনায়ক তামিম ইকবালের সেঞ্চুরিতে ৫ উইকেটের জয় নিয়ে জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করে বাংলাদেশ।

আফগানিস্তানঃ দীর্ঘ ৭ মাস পর, ঘরের মাটিতে আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ক্রিকেটে ফেরে টাইগাররা। আফগানিস্তানের ওয়ার্ল্ড ক্লাস বোলিং লাইনআপ এক সময় বাংলাদেশের জন্য চ্যালেঞ্জ মনে হলেও , ঘরের মাটিতে নিজেদের সবচেয়ে পছন্দের ফরমেটে বাংলাদেশ ফেভারিটদের মতোই খেলেছে।

 

ওয়ানডে সুপার লিগের শীর্ষে বাংলাদেশ

 

এখনো, ১ ম্যাচ বাকি থাকতেই পরপর সিরিজের ২ টি ওয়ানডে জিতে ইতোমধ্যেই সিরিজ নিশ্চিত করে ফেলেছে বাংলাদেশ।সিরিজের প্রথম ম্যাচে আফিফ হোসেন এবং মেহেদি হাসান মিরাজের অনবদ্য ১৭৪ রানের জুটিতে ৪ উইকেটের এক স্মরণীয় জয় পায় বাংলাদেশ।

এছাড়া, সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে লিটন দাসের সেঞ্চুরি এবং পুরো বোলিং লাইনআপের টিম এফোর্টে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই সিরিজ নিশ্চিত করে বাংলাদেশ।এই, সুবাদেই আইসিসি ওয়ানডে সুপার লিগের শীর্ষস্থানে চলে এসেছে বাংলাদেশ।

এই আফগানিস্তান সিরিজ ছাড়াও, এ বছর আরো অনেক ওয়ানডে সিরিজ রয়েছে বাংলাদেশের সামনে। দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা, জিম্বাবুয়ে, ভারতসহ বেশকিছু বড় দলের বিপক্ষে রয়েছে সিরিজ। বাংলাদেশ আসন্ন সিরিজগুলোতেও ওয়ানডে ক্রিকেটে নিজেদের সফলতার ধারা বজায় রাখতে পারবে নাকি আবারো পরাজয়ের কাছে বিসর্জন দেবে সফলতার বিজয়গাথা, এই যেনো এখন দেখার পালা।

আরও পড়ুন:

আফগানদের বিপক্ষে কেমন হবে একাদশ? ৩ নম্বরে ব্যাট করবেন কে?

“ওয়ানডে সুপার লিগের শীর্ষে বাংলাদেশ [ One day super league ]”-এ 1-টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন