ঋষভ পন্তঃ ক্রিকেট মাঠে অবস্থান করা এক সাইক্লোন ব্যাটার

ঋষভ পন্তঃ ক্রিকেট মাঠে অবস্থান করা এক সাইক্লোন ব্যাটার, ঋষভ পন্ত, বর্তমান ভারতীয় দলের এক অন্যতম ভরসাযোফ্য ব্যাটার। নিজের দিনে নিজের ব্যাটিং নৈপুণ্যে রীতিমত বিশ্বের যেকোনো বোলিং সাইডকেই গুঁড়িয়ে দিয়ে পারেন ঋষভ । ঋষভ যখন ব্যাট করতে ক্রিজে আসেন, তখন কোনোরকম পিছুটান ছাড়াই যেনো নিজের পছন্দের আক্রমণাত্মক স্ট্রোকগুলো খেলতেই থাকেন।
ডিসেম্বর, ২০১৫ সালে বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ খেলার উদ্দেশ্যে ঈষান কিষাণের নেতৃত্বাধীন ভারত দলের সদস্যরূপে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। ঐ প্রতিযোগিতায় নেপালের বিপক্ষে অর্ধ-শতরানের নতুন রেকর্ড গড়েন। ১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ তারিখে তিনি ১৮ বলে অর্ধ-শতরানের ইনিংস খেলেন। এটিই এ স্তরের খেলায় দ্রুততম ইনিংস।ঐ খেলায় তার দল জয়লাভ করেছিল।
এরপর নামিবিয়ার বিপক্ষে সেঞ্চুরি করে ভারতকে সেমি-ফাইনালে নিয়ে যান। ওয়াশিংটন সুন্দর তার সহখেলোয়াড় ছিলেন। সেসময় মেহেদী হাসান, রশীদ খান, স্যাম কারেন ও শিমরন হেটমায়ার তার প্রতিদ্বন্দ্বী খেলোয়াড় ছিলেন। উত্তরাখণ্ডের রুরকি এলাকায় রাজেন্দ্র পন্ত ও সরোজ পন্ত দম্পতির সন্তান ঋষভ পন্ত চতুর্থ শ্রেণীতে থাকাকালে কিশোরদের সাথে ম্যাটিং ট্র্যাকে ক্রিকেট খেলতে শুরু করেন। সনেট ক্রিকেট একাডেমিতে তারক সিনহা’র কাছ থেকে প্রশিক্ষণ নেন।

ঋষভ পন্তঃ ক্রিকেট মাঠে অবস্থান করা এক সাইক্লোন ব্যাটার

ঋষভ পন্তঃ ক্রিকেট মাঠে অবস্থান করা এক সাইক্লোন

তার কোচ রাজস্থানের অনূর্ধ্ব-১৩ ও অনূর্ধ্ব-১৫ দলে খেলার জন্যে প্রচেষ্টা চালালেও সফলকাম হননি। তার পরামর্শক পুরো ব্যাটিং কৌশল রপ্ত করার জন্যে হাতের দিকে নজর রেখে অগ্রসর হবার পরামর্শ দেন। দিল্লির সদস্যরূপে আসামের বিপক্ষে অনূর্ধ্ব-১৯ পর্যায়ের ক্রিকেট খেলায় অংশগ্রহণই তার খেলোয়াড়ী জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দেয়। ৩৫ রান করে দলের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হন। এরপর দ্বিতীয় ইনিংসে ১৫০ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেন।
২২ অক্টোবর, ২০১৫ তারিখে দিল্লিতে অনুষ্ঠিত প্রথম-শ্রেণীর রঞ্জি ট্রফি প্রতিযোগিতায় বাংলার বিপক্ষে ঋষভ পন্তের অভিষেক ঘটে। এরপর ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৫ তারিখে ব্যাঙ্গালোরে ঝাড়খণ্ডের বিপক্ষে বিজয় হাজারে ট্রফি প্রতিযোগিতার খেলার মাধ্যমে লিস্ট এ খেলায় অভিষেক হয়।
২০১৬-১৭ মৌসুমের রঞ্জি ট্রফি মহারাষ্ট্রের বিপক্ষে ৩০৮ রানের মনোজ্ঞ ইনিংস উপহার দেন। এরফলে, তৃতীয় সর্বকনিষ্ঠ ভারতীয় ক্রিকেটার হিসেবে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে ত্রি-শতরানের ইনিংস খেলার অধিকারী হন। তাসত্ত্বেও, মহারাষ্ট্র দল দিল্লির চেয়ে এগিয়েছিল।
৮ নভেম্বর, ২০১৬ তারিখে রঞ্জি ট্রফিতে দ্রুততম সেঞ্চুরি করেন। এরজন্যে তিনি মাত্র ৪৮ বল খরচ করেছিলেন। ঐ খেলায় দিল্লির প্রতিপক্ষীয় দল ছিল ঝাড়খণ্ড দল। ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ সালের বিজয় হাজারে ট্রফিতে দিল্লির অধিনায়কত্ব করেন। পূর্ববর্তী মৌসুমে দিল্লিকে চূড়ান্ত খেলায় নিয়ে যাওয়া অধিনায়ক গৌতম গম্ভীরের স্থলাভিষিক্ত হন তিনি।
দিল্লির কোচ ভাস্কর পিল্লাই এ প্রসঙ্গে মন্তব্য করেন যে, এটি সম্মিলিত সিদ্ধান্ত ছিল।২০১৭-১৮ মৌসুমের জোনাল টি২০ লীগে হিমাচলপ্রদেশের বিপক্ষে দূর্দান্ত খেলেন তিনি। ১৪ জানুয়ারিতে অনুষ্ঠিত ঐ খেলায় ঋষভ পন্ত টুয়েন্টি২০ খেলার ইতিহাসে ভারতের পক্ষে দ্বিতীয় দ্রুততম সেঞ্চুরি করেন। এর জন্যে তিনি ৩২ বল মোকাবেলা করেছিলেন।
২০১৭ সাল থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অঙ্গনে বিচরণ করছেন ঋষভ পন্ত। ১৮ আগস্ট, ২০১৮ তারিখে নটিংহামে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এরপর ২১ অক্টোবর, ২০১৮ তারিখে গুয়াহাটিতে অনুষ্ঠিত খেলায় সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো ওডিআইয়ে অংশ নেন। জানুয়ারি, ২০১৭ সালে বিরাট কোহলি’র অধিনায়কত্বে সফরকারী ইংরেজ দলের বিপক্ষে টি২০আই সিরিজ খেলার লক্ষ্যে ভারত দলে অন্তর্ভুক্ত হন।
১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ তারিখে ব্যাঙ্গালোরের এম. চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে সিরিজের তৃতীয় টি২০আইয়ে অভিষেক ঘটে তার।১৯ বছর ১২০ দিন বয়সে টি২০আই খেলায় ভারতের সর্বকনিষ্ঠ ক্রিকেটারের মর্যাদা পান। পরবর্তীতে অবশ্য ২০১৭ সালেই ওয়াশিংটন সুন্দর ১৮ বছর ৮০ দিন বয়সে টি২০আইয়ে অংশ নিয়ে রেকর্ডটি নিজের করে নেন।
ঋষভ পন্তঃ ক্রিকেট মাঠে অবস্থান করা এক সাইক্লোন
দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সেঞ্চুরির পর ঋষভ

ঋষভ পন্তঃ ক্রিকেট মাঠে অবস্থান করা এক সাইক্লোন ব্যাটার

জুন, ২০১৭ সালে কুলদীপ যাদবের সাথে ভারতের সীমিত ওভারের দলে অন্তর্ভুক্ত হন ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ গমন করেন।২০১৮ সালের নিদাহাস ট্রফি প্রতিযোগিতায় রোহিত শর্মা’র নেতৃত্বাধীন ভারতের টি২০আই দলে তার ঠাঁই হয়। জুলাই, ২০১৮ সালে ভারত দলের সাথে আয়ারল্যান্ড ও ইংল্যান্ড গমন করেন। ঐ সফরে কুলদ্বীপ যাদবের সাথে ভারতের প্রথম তিন টেস্ট খেলার জন্যে মনোনীত হন।
১৮ আগস্ট, ২০১৮ তারিখে নটিংহামে স্বাগতিক ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় টেস্টে অভিষেক হয় তার। এরফলে তিনি ভারতের ২৯১তম টেস্ট খেলোয়াড় হিসেবে ভারত দলে খেলেন। ভারতের পক্ষে প্রথমবারের মতো খেলতে নেমেই ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন।
ঋষভ পন্তঃ ক্রিকেট মাঠে অবস্থান করা এক সাইক্লোন
ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সেঞ্চুরির পর ঋষভ
১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ তারিখে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে নিজস্ব প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি করেন। এরফলে ক্রিকেটের ইতিহাসে দ্বিতীয় সর্বকনিষ্ঠ ও প্রথম ভারতীয় উইকেট-রক্ষক হিসেবে ইংল্যান্ডের মাটিতে টেস্ট সেঞ্চুরি করার কীর্তিগাঁথা রচনা করেন ঋষভ পন্ত।
পরের মাসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে খেলেন। ২০১৮-১৯ মৌসুম সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওডিআই সিরিজে তিনি মুরালি কার্তিকের স্থলাভিষিক্ত হন।২১ অক্টোবর, ২০১৮ তারিখে গুয়াহাটিতে অনুষ্ঠিত দিবা-রাত্রির খেলায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে একদিনের আন্তর্জাতিকে অভিষিক্ত হন তিনি। ডিসেম্বর, ২০১৮ সালে অস্ট্রেলিয়া গমন করেন।
ঋষভ পন্তঃ ক্রিকেট মাঠে অবস্থান করা এক সাইক্লোন
অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সেঞ্চুরির পর ঋষভ
২০১৮-১৯ মৌসুমে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টে এগারোটি ক্যাচ গ্লাভসবন্দী করেন। এরফলে প্রথম ভারতীয় উইকেট-রক্ষক হিসেবে এক টেস্টে সর্বাধিক ক্যাচ নেয়ার কৃতিত্ব গড়েন। জানুয়ারি, ২০১৯ সালে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজের চতুর্থ টেস্টে নিজস্ব দ্বিতীয় সেঞ্চুরি হাঁকান।
এরফলে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে প্রথম ভারতীয় উইকেট-রক্ষক হিসেবে সেঞ্চুরি করার অধিকারী হন। জানুয়ারি, ২০১৯ সালে আইসিসি কর্তৃপক্ষ ঋষভ পন্তকে আইসিসি বর্ষসেরা উদীয়মান খেলোয়াড়ের পুরস্কার প্রদান করা হয়। এরপর থেকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি ঋষভকে। সম্প্রতি, চলমান ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্টেও নিজের ১৪৬ রানের আগ্রাসী ইনিংস খেলে নিজের সামর্থ্যের জানান দিয়েছেন ঋষভ।

মন্তব্য করুন