মাঠের বাহিরেও সরব সাকিব-তামিমরা

মাঠের বাহিরেও সরব সাকিব-তামিমরা : সম্প্রতি, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জিতে ইতিহাস গড়েছে তামিম ইকবাল নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ। এবার, সিরিজ জয়ের পর মাঠের বাহিরেও সরব সাকিব তামিমরা।  গতকাল দেশে ফিরেছেন সাকিব আল হাসান , দেশে ফিরেই বিমানবন্দরে সাকিবের সঙ্গে কথা বলেন গণমাধ্যমকর্মীরা এবং সাকিবের পাশপাশি অধিনায়ক তামিম একটি শো’তে বাংলাদেশের বিজয় নিয়ে কথা বলেছেন।

টেস্ট সিরিজও খেলার কথা থাকলেও পরিবারের সদস্যদের অসুস্থতার কারণে আর টেস্ট সিরিজ খেলা হলো না সাকিবের। ওয়ানডে সিরিজ খেলেই তাই তড়িগড়ি ঢাকা ফিরে এসেছেন বাংলাদেশ দলের প্রাণ ভোমরা সাকিব আল হাসান।

মাঠের বাহিরেও সরব সাকিব-তামিমরা
ওয়ানডে সিরিজে সাকিব আল হাসান

গতকাল রাতেই ৯টার পর ঢাকায় এসে নামে সাকিবকে বহনকারী বিমান। এর আগের রাতে ওয়ানডে সিরিজ জয়ের পর গতকাল সকালেই তিনি ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন।

তিন সন্তান, মা এবং শাশুড়ি অসুস্থ হয়ে ভর্তি ছিলেন হাসপাতালে। যে কারণে শেষ ওয়ানডের আগেই ফিরে আসতে চেয়েছিলেন সাকিব। তবে শেষ পর্যন্ত সিদ্ধান্ত পাল্টে তিনি থেকে যান এবং ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচ খেলেই দেশে ফিরে আসেন।

[ মাঠের বাহিরেও সরব সাকিব-তামিমরা ]

সাকিবের উপস্থিতি দলের মধ্যে ফেলে ইতিবাচক একটি প্রভাব। অন্যরা নির্ভার হয়ে খেলতে পারে। শেষ ম্যাচে যেটা দেখা গেছে। বাংলাদেশ দক্ষিণ আফ্রিকাকে অলআউট করে দিয়েছে ১৫৪ রানে। বল হাতে ২ উইকেট নিয়েছেন সাকিব। ব্যাট হাতে করেন অপরাজিত ১৮ রান।

প্রথম ম্যাচে সর্বোচ্চ ৭৭ রান এসেছিল সাকিবের ব্যাট থেকে। যে কারণে তিনি হয়েছিলেন ম্যান অব দ্য ম্যাচ।

দেশে ফেরার পর সাকিবের কাছে সিরিজ জয়ের অনুভুতি সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “খুবই ভালো লাগছে, দক্ষিণ আফ্রিকায় সিরিজ জিতেছি। যেখানে কন্ডিশন আমাদের অনুকুলে না। সেখানে আমরা সিরিজ জিততে পেরেছি। তা তো অবশ্যই আমাদের জন্য ভালো।সিরিজ জয়ের জন্য সবাই চেষ্টা করেছে ভালো করার জন্য। সবার কন্ট্রিবিউশন ছিল, সে কারণেই আমরা জিততে পেরেছি। আর বাংলাদেশ দলে সিনিয়র-জুনিয়র সবাই পারফর্ম করছে, এটা স্বস্তির। আর পেস বোলাররা অনেকদিন ধরেই ভালো করে আসছে।”

মাঠের বাহিরেও সরব সাকিব-তামিমরা
মাঠের বাহিরেও সরব সাকিব-তামিমরা

প্রোটিয়াদের মাটিতে তাদের বিপক্ষে ঐতিহাসিক সিরিজ জয়ের স্মৃতি নিয়ে দেশে ফিরেছেন এ অলরাউন্ডার। প্রথম টেস্ট ডারবানে, এটিতে সাকিব খেলবেন না এক প্রকার নিশ্চিত। দ্বিতীয় টেস্ট পোর্ট এলিজাবেথে হলেও তাকে পাওয়া যাবে কি না তা এখনই নিশ্চিত করতে পারেননি। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ নিয়ে নিজের আশার কথাই শোনালেন সাকিব।

দেশে ফিরে বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের টেস্ট সিরিজ জয়ের স্বপ্ন দেখান সাকিব আল হাসান। এর আগে দ্বিপক্ষীয় সিরিজে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে কোনো সংস্করণেই জয় ছিল না বাংলাদেশের। সেখানে এবার জেতা হয়ে গেছে ওয়ানডে সিরিজই।

সাকিব বলেন, “মূল চ্যালেঞ্জটা টেস্ট সিরিজেই, ‘টেস্ট বেশি চ্যালেঞ্জিং হবে। এমনিতে গত ৫-৭ বছর ধরেই ওয়ানডেতে ভালো দল আমরা, সবাই জানি। ওয়ানডেতে ট্রু উইকেটও থাকে। তবে  যারা ভাল করবে , তাদেরই সম্ভাবনা বেশি। আর টেস্টে কন্ডিশনের সুবিধাও বেশি পায় হোম দল।”

এছাড়াও, দেশের পেসারদের নিয়েও কথা বলেছেন সাকিব আল হাসান। তিনি বলেন, ” দেখুন আমাদের পেস বোলাররা গত কিছুদিন ধরে বেশ ভালো বোলিং করছে। যে কারণে আমরা নিউজিল্যান্ডেও টেস্টটা জিততে পেরেছিলাম। পেস বোলারদের প্রতি এখন অনেক বেশি আস্থা আছে সতীর্থদের, টিম ম্যানেজমেন্টেরও। পেস বোলাররা সেটির প্রতিদানও দিচ্ছে।”

মাঠের বাহিরেও সরব সাকিব-তামিমরা
সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে অর্ধশতক হাকানোর পর তামিম ইকবাল

গণমাধ্যমে কথা বলেছেন বাংলাদেশ দলের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল খানও। এক সময়ে গলায় গলায় ভাব ছিলো দুই বন্ধু সাকিব এবং তামিমের। দক্ষিণ  আফ্রিকার বিপক্ষে তৃতীয় ওয়ানডেতে জয়সূচক রান আসে , সাকিব আল হাসানের ব্যাট থেকে।

বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে তামিম  বলেন,” আমরা ভেতরে কেমন থাকি, কীভাবে কথা বলি, তা তো আপনারা দেখতে পান না। আমাদের চলনবলন আপনাদের চোখে পড়ে না। শুধু শুনতে পান। গতকাল বুধবার মাঠে যা দেখেছেন তা দেখা যায়। এখন কোনটা বিশ্বাস করবেন? যেটা দেখতে পান সেটা নাকি বাতাসে যেটা ভেসে বেড়ায় ওটা?”

এছাড়াও, সাকিবকে নিয়ে তামিম বলেন,” সাকিব যা করেছে, তা খুব বেশি খেলোয়াড় করে না। এ পরিস্থিতিতে সবাই পরিবারের কাছে যেতে চাইতো। কিন্তু সে যায়নি।এজন্য অনেক বড় মনের অধিকারী হতে হয়। ও সেঞ্চুরি করেছে কি না কিংবা ৫ উইকেট পেয়েছে কি না তা গুরুত্বপূর্ণ নয়। দেশ ও দলের জন্য যে নিবেদন দেখিয়েছে সেটাই মহাগুরুত্বপূর্ণ। সাকিবের পারফরম্যান্সের চেয়েও এটাই আমার কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। পরিবারের ৩-৪ জন হাসপাতালে ভর্তি থাকা সত্ত্বেও খেলছে সে। সতীর্থদের সঙ্গে হাসিমুখে থেকেছে। এজন্য বিশাল বড় হৃদয়ের দরকার।”

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথমটি শুরু হবে ৩১ মার্চ।

 

মাঠের বাহিরেও সরব সাকিব-তামিমরা

 

“মাঠের বাহিরেও সরব সাকিব-তামিমরা”-এ 1-টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন