নাইম শেখঃ আলো ছড়ানো সূর্যোদয়ের এক তমসাচ্ছন্ন প্রতিচ্ছবি

নাইম শেখঃ আলো ছড়ানো সূর্যোদয়ের এক তমসাচ্ছন্ন প্রতিচ্ছবি !

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নাইম শেখের অভিষেক হয়েছিল অনেকটা রাজকীয় ভাবে। ভারতের মাটিতে আন্তর্জাতিক টি টোয়েন্টি সিরিজ খেলার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে অভিষেক হয় নাইম শেখের। ভারতের বিপক্ষে প্রথম টি টোয়েন্টি ম্যাচটি বাংলাদেশ জেতে , যেখানে অভিষেক ম্যাচে ২৮ বলে ২৬ রানের ইনিংস খেলেন নাইম। সে ম্যাচে, নাইম দলের জয়ে তেমন ভূমিকা না রাখতে পারলেও নিজের ব্যাটিং ঝলক ঠিকই দেখাতে পেরেছিলেন তিনি। সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে ৩১ বলে ৩৬ রান করেন নাইম।

নাইম শেখঃ আলো ছড়ানো সূর্যোদয়ের এক তমসাচ্ছন্ন প্রতিচ্ছবি
নাইম শেখ

কিন্তু, সিরিজের তৃতীয় টি টোয়েন্টিতে নাইম শেখের অনবদ্য ৪৮ বলে ৮১ রানের এক ইনিংস খেলেন। নাইম শেখের সে ইনিংসটি দেখেই হয়ত, দেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা তাকে দেশের  ভবিষ্যৎ সুপারস্টার ভেবেছিলেন। ২০১৯ সালের , সে ভারত সফরে বাংলাদেশ মাত্র ১টি টি টোয়েন্টি ম্যাচ জিতলেও সে সিরিজে বাংলাদেশের এক অন্যতম অর্জন ছিলো , নাইম শেখের মতো এক তরুণ প্রতিভার সন্ধান পাওয়া।

তবে, ধীরে ধীরে নিজের সে সুনাম হারিয়ে ফেলেছেন নাইম । অনেকে এটার মূল কারণ হিসেবে তার স্লো ব্যাটিংকেই দাবি করে থাকেন। বাংলাদেশ জাতীয় দলে, সুযোগ পাওয়াটা মোটেও নাইমের জন্য সহজ ছিলো না।

তিনি অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ খেলেন ২০১৮ সালে। যার সুবাদে, ২০১৮-১৯ মৌসুমে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগে  ঢাকা ডাইনামাইটসের হয়ে অভিষেক হয় তার।

[ নাইম শেখঃ আলো ছড়ানো সূর্যোদয়ের এক তমসাচ্ছন্ন প্রতিচ্ছবি ]

নাইম শেখের জন্ম ১৯৯৯ সালের ২২ আগস্ট, ঢাকায়।২০১৬ সালে, মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে পারেননি নাইম । এরপরে, ফরিদপুরের একটি ক্রিকেট ক্লাবে ভর্তি হয়ে সেখানেই নিজের ক্রিকেটীয় ক্যারিয়ারের শুরু করেন তিনি। তিনি ২০১৬-১৭ সালে জেলা দলের হয়ে খেলার সুযোগ পান। এরপর, জেলা ক্রিকেটে ফরিদপুর জেলার সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হন নাইম। ২০১৬ সালে , চ্যালেঞ্জ কাপে অংশ নেন নাইম।

সেখানেই, টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হয়ে বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৯ দলে খেলার সুযোগ হয় তার।নাইম শেখের লিস্ট এ অভিষেক হয় ২০১৭-১৮ মৌসুমের ঢাকা প্রিমিয়ার লীগে , লেজেন্ডস অব রুপগঞ্জের হয়ে। ২০১৭-১৮ মৌসুমে , লেজেন্ডস অব রূপগঞ্জের হয়ে ১২ ম্যাচে ৪

নাইম শেখঃ আলো ছড়ানো সূর্যোদয়ের এক তমসাচ্ছন্ন প্রতিচ্ছবি
নাইম

৬.৩৩ গড়ে ৫৫৬ রান করেছিলেন নাইম। ২০১৮ সালে বাংলাদেশের হয়ে অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ খেলেন নাইম।

তিনি লেজেন্ডস অব রুপগঞ্জের হয়ে , ২০১৮-১৯ মৌসুমে ১৬ ম্যাচে ৩ সেঞ্চুরি ও ৫ ফিফটিতে ৮০৭ রান করেন ৫৩.৮০ গড় এবং ৯৪.৩৮ স্ট্রাইক রেটে। ঘরোয়া লিগে, টানা দুই মৌসুমে ধারবাহিক ব্যাটিংয়ের প্রদর্শনের পর বিসিবি হাই পারফর্ম্যান্স দল এবং বাংলাদেশ ‘এ’ দলে খেলার সুযোগ পান নাইম।

বাংলাদেশ ‘এ’ দলে সুযোগ পাওয়ার পর আফগান ‘এ’ দলের বিপক্ষে ১২৬ রানের একটি ইনিংস খেলেন নাইম। ২০১৯ সালে ভারতের বিপক্ষে নিজের আন্তর্জাতিক অভিষেক হওয়া সিরিজের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন নাইম। এরপরও, টি টোয়েন্টি সিরিজগুলোতে নিয়মিত রান করে গেছেন নাইম।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অ্যাওয়ে টি টোয়েন্টি সিরিজেও  নাইমের ব্যাটে ছিলো রান। এছাড়া, ২০২১ টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও বেশ কিছু রান এসেছিল নাইমের ব্যাট থেকে। আন্তর্জাতিক টি টোয়েন্টি ক্রিকেটে নাইম এখন পর্যন্ত ৩২ টি ম্যাচ খেলে ৪ ফিফটির বিনিময়ে ২৫.৬১ গড়ে ৭৯৪ রান করেন। আন্তর্জাতিক টি টোয়েন্টিতে বেশি সুযোগ পেলেও, নাইম শেখ আন্তর্জাতিক ওয়ানডে খেলছেন মাত্র ২টি এবং আন্তর্জাতিক টেস্ট খেলেছেন ১ টি যেখানে , তার তেমন কোনো সফলতা নেই বললেই চলে।

২০২১ টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে , ২৪.৮৫ গড়ে ১৭৪ রান করেন যেখানে ছিলো ২টি ফিফটি। তবে, রানের ক্ষেত্রে মোটামুটি ধারাবাহিক নাইম শেখ যথাযথভাবেই স্ট্রাইক রেটের দিক থেকে পিছিয়ে। পুরো টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে মাত্র ১১০ স্ট্রাইক রেটে রান করেছেন যা বর্তমান টি টোয়েন্টি ক্রিকেটের ব্র্যান্ডের সাথে মোটেও মানানসই নয়।

নাইম শেখঃ আলো ছড়ানো সূর্যোদয়ের এক তমসাচ্ছন্ন প্রতিচ্ছবি
২০২২ বিপিএলে, নাইম  ( কালো বলঃ ডট;
লাল বলঃ আউট)

হঠাৎ, নাইম শেখের ব্যাটিংয়ে এই ছন্দপতনের মূল কারণ হলো অফ স্ট্যাম্পের বাহিরের বলে তার দূর্বলতা। কোনো বোলার অফ স্ট্যাম্পের বাহিরে তাকে বল করলেই তিনি কোনো প্রকার ফুটওয়ার্ক ছাড়াই সে বলটি হিট করেন। যার কারণে, বারবার বোলারের কাছে পরাস্ত হন তিনি।

চলমান, বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগেও ব্যাট হাতে নাইমের মলিন পারফর্মেন্স যেনো এ বিষয়টিরই ইঙ্গিত দিচ্ছে। মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকার হয়ে খেলা নাইম তার অফ স্ট্যাম্পের বাহিরের বল খেলার দুর্বলতার কারণেই চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে মহামূল্যবান পয়েন্ট হারায় তার দল। যার কারণে, প্রথম রাউন্ড থেকেই বিদায় নেয় মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকা। ২০২২ বিপিএলে, ৫ ম্যাচে ৬.২ গড়ে মাত্র ৩১ রান করেন।

নাইমের এই ফর্মহীনতার কারনে, মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকা তাকে বিভিন্ন পজিশনে খেলালেও কোনো পজিশনেই ধাকার জন্য উল্লেখযোগ্য কিছু করে দেখাতে পারেননি নাইম। দিন দিন ব্যাট হাতে যেন,  ম্লান থেকে ম্লানতর হয়ে যাচ্ছেন নাইম। তবুও, নাইম শেখ নিজের খারাপ ব্যাটিং প্যাচ কাটিয়ে আবারো স্বরূপে ফিরবেন এই যেনো দেশের সকল সমর্থকদের প্রত্যাশা।

আরও পড়ুন:

মঈনের ব্যাটিং ঝড়ে কুমিল্লার জয়; আবারো, সাকিবের ব্যাটে হাসলো বরিশাল

“নাইম শেখঃ আলো ছড়ানো সূর্যোদয়ের এক তমসাচ্ছন্ন প্রতিচ্ছবি”-এ 3-টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন