কেমন ছিলো নারীদের বিশ্বকাপ ক্রিকেট মিশন?

কেমন ছিলো নারীদের বিশ্বকাপ ক্রিকেট মিশন?

এবারই প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। এর আগে, আন্তর্জাতিক টি টোয়েন্টি ক্রিকেট বিশ্বকাপে বহুবার অংশগ্রহণ করলেও আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ক্রিকেট বিশ্বকাপে এবারই প্রথম অংশগ্রহণ করলো বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। তবে, নিজেদের অংশগ্রহণ করা প্রথম বিশ্বকাপেই পাকিস্তানের বিপক্ষে জয় তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। এছাড়াও, বাকি দলগুলোর বিপক্ষে জয় না পেলেও ঠিকই প্রতিপক্ষের বুকে চির ধরাতে সক্ষম হয়েছে বাংলার মেয়েরা।

২০২২ নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপে, বাংলাদেশ তাদের প্রথম ম্যাচ খেলেছে টুর্নামেন্টের হট ফেভারিট দক্ষিণ আফ্রিকার সাথে। দক্ষিণ আফ্রিকার এই নারী ক্রিকেট দল বর্তমানে আইসিসি নারী ক্রিকেট র‍্যাংকিংয়ের দ্বিতীয় স্থানে অবস্থান করছে। সে দক্ষিণ আফ্রিকা নারী ক্রিকেট দলের বিপক্ষে জিততে জিততে একটুর জন্য হেরে গিয়েছিল বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। সে ম্যাচে , দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ৩২ রানে হারে টাইগ্রেসরা।

 

Cricket GOLN-Website Logo-01

 

প্রথম ম্যাচে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে সমানতালে লড়াই করেছে নিগার সুলতানারা।টাইগ্রেস বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ৪৯.৫ ওভারে ২০৭ রানে গুটিয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংস। বল হাতে লাল সবুজের প্রতিনিধিদের হয়ে জাহানারা আলম ২৮ রানে ২ উইকেট, ফারিয়া আক্তার তিশা ৩৫ রানে তিনটি, রিতু মনি ৩৬ রানে ২টি উইকেট লাভ করেন।

দক্ষিণ আফ্রিকার ২০৭ রানের জবাবে খেলতে নেমে ৪৯.৩ওভারে ১৭৫ রানের গুটিয়ে যায় টাইগারদের ইনিংস। ফলে ৩২ রানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে প্রোটিয়ারা। ২০৮ রানের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে খেলতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতে শামীমা সুলতানা ও শারমিন আক্তার ৬৯ রানের পার্টনারশিপ গড়ে তোলেন। ৫০ বলে ২৭ রান করে শামীমা সাজঘরে ফিরলেন লড়াই চালিয়ে যান শারমিন। ১১৩ রানের মাথায় বাংলাদেশের মেয়েরা ছয় উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায়। দলের চরম বিপদের সময় রিতু মনিকে নিয়ে সপ্তম উইকেটে জুটিতে ৫৩ রান যোগ করেন নিগার সুলতানা জ্যোতি।

[ কেমন ছিলো নারীদের বিশ্বকাপ ক্রিকেট মিশন? ]

এই জুটির দুর্দান্ত ব্যাটিং নৈপুণ্যে ম্যাচে জয়ের স্বপ্ন দেখছিল টাইগার সর্মথকরা। ৩৮ বলে ২৭ রান করে রিতু মনি সাজঘরে ফিরে গেলে সে স্বপ্ন মলিন হয়ে যায়। রিতু মনি আউট হলে বেশিক্ষন ক্রিজে টিকতে পারেননি জ্যোতি ২৯ রান করে আউট হন তিনি।

এরপরের ম্যাচে, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ব্যাটিং করতে নেমে শুরুটা বেশ ভালো করে বাংলাদেশ , তবে ব্যাটিং দুর্বলতার কারণে ১৪১ রান করে বাংলাদেশ। এরপরে, ম্যাচটি ৯ উইকেটে হারে বাংলাদেশ।

 

কেমন ছিলো নারীদের বিশ্বকাপ ক্রিকেট মিশন?
পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল

 

তবে, এরপরে ম্যাচ পাকিস্তানকে হারিয়ে চমক দেখায় বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল।

হ্যামিল্টনে, টস হেরে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। শুরুটা, বেশ ভালোই হয় বাংলাদেশের নারীদের। ফারজানা হকের ৭১ আর উদ্বোধনী ব্যাটার শারমিন আক্তার (৪৪) ও অধিনায়ক নিগার সুলতানার (৪৬) দুটি চল্লিশোর্ধ্ব ইনিংসে নিজেদের সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়ে বাংলাদেশের নারীরা। তাই এ স্কোরের মাধ্যমে, নিজেদের জয়ের স্বপ্ন দেখছিল লাল সবুজের প্রতিনিধিরা।

বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭১ রান করেন ফারজানা হক। ওপেনার সিদরা আমিনের ব্যাটে জয়ের স্বপ্ন দেখছিল পাকিস্তান। এক পর্যায়ে মনে হচ্ছিল , ম্যাচটি বেশ কিছু বল বাকি থাকতেই জয় তুলে নিবেন পাকিস্তানি মেয়েরা। তবে, বিধি বাম। বাংলাদেশী নারীদের হার না মানা উদ্যমে পাকিস্তানের হাত থেকে জয় ছিনিয়ে নেয় বাংলার বাঘিনীরা।

২৩৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা দারুণ হয় পাকিস্তানেরও। উদ্বোধনী জুটিতেই নাহিদা খাতুনের (৪৩) সঙ্গে মিলে সিদরা আমিন যোগ করেন ৯১ রান।

২৪তম ওভারে রুমানার বলে বোল্ড হয়ে নাহিদা ফিরলেও অধিনায়ক বিসমাহ মারুফের (৩১ রান) সঙ্গে তৃতীয় উইকেটে আবার ৬৪ রানের জুটি করেন সিদরা। এর মধ্যে অর্ধশতক হয়ে যায় তাঁর, ৮৫ বলে। ৩৮তম ওভারে, ১৫০ পেরিয়ে যায় পাকিস্তানের।

৩৮তম ওভারে, পেসার জাহানারা আলমের বলে শারমিন আক্তারের হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন বিসমাহ । এরপর, ওমাইমা সোহেলকে সঙ্গে নিয়ে আবার জুটি গড়ার চেষ্টা করেন সিদরা। ৪২তম ওভারের প্রথম বলে পাকিস্তান ১৮০ পেরিয়ে গেলে হারের শঙ্কা জেঁকে বসে বাংলাদেশ শিবিরে। বাংলাদেশের জয় বুঝি আর পাওয়া হলো না, এমনটাই মনে হচ্ছিল তখন। তবে, সে ওভারের শেষ ফাহিমার বলে দারুণ ক্যাচে ওমাইমাকে (১০) সাজঘরে ফেরালেন ফারজানা সেখান থেকেই ম্যাচে অবিশ্বাস্যভাবে ঘুরে দাড়ানোর শুরু বাংলাদেশের।

পরের ওভারের তৃতীয় বলে রুমানার বলে ক্যাচ দিয়ে আউট হন নিদা দার। তার পরের ওভারে দ্বিতীয় ও তৃতীয়—পরপর দুই বলে দুটি এলবিডব্লুতে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনাই জাগিয়ে তুললেন লেগস্পিনার ফাহিমা। নিদা দারের মতো দুই ব্যাটার আলিয়া রিয়াজ ও ফাতিমা সানা ,ফিরলেন প্রথম বলে ০ রানে। এরপর, আর দাড়াতে পারেনি পাকিস্তানি নারীরা। ম্যাচ শেষে, ৯ রানের জয়  নিয়ে মাঠ ছাড়ে টাইগ্রেসরা।

 

কেমন ছিলো নারীদের বিশ্বকাপ ক্রিকেট মিশন?
উইন্ডিজের বিপক্ষে নারী ক্রিকেট দল

 

উইন্ডিজের বিপক্ষে, জেতা ম্যাচ হেরে বসে বাংলাদেশ। তাদের বিপক্ষে মাত্র ৫ রানে হারে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেটের ১ নম্বর দল অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে শুরুর দিকে উইকেটে নিয়ে ম্যাচ জয়ের আশা তৈরি করেছিল বাংলাদেশ।

এবারের, নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপে বাংলাদেশ মাত্র ১ টি জয় নিয়েও টপ দলগুলোর বিপক্ষে যে হার না মানা পারফর্মেন্স দেখিয়েছে তা নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবি রাখে। বাংলাদেশের পুরুষ ক্রিকেট দলের পাশাপাশি নারী ক্রিকেট দলও সামনে এগিয়ে যাবে এবং বাংলাদেশকে আরো জয় উপহার দেবে এটিই যেনো সকলের প্রত্যাশা।

 

Cricket GOLN-Website Logo-01

 

আরও দেখুন:

কামিন্সের সাহসী সিদ্ধান্ত : অস্ট্রেলিয়ার বাজিমাত

আইপিএল এ দল পেলে কি সাকিব উপভোগ করতেন? – প্রশ্ন পাপনের

সাইফুদ্দিনের মন্তব্যে আবারো তোলপাড় দেশের ক্রিকেটাঙ্গনে

পঞ্চপান্ডবে ফাটল এবং দেশের ক্রিকেটের অস্থিতিশীল অবস্থা

অবসান ঘটলো সাকিব এবং বিসিবি নাটকের?

 

মন্তব্য করুন